• ঢাকা
  • শনিবার, ২ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • Govt. SL. No:-352

Advertise your products here

দুই ভাইয়ের প্রতারণার শিকার কলেজ ছাত্রী স্মৃতি


ডে-নাইট-নিউজ ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ০৭:২৯ পিএম;
দুই ভাইয়ের প্রতারণার শিকার কলেজ ছাত্রী স্মৃতি
দুই ভাইয়ের প্রতারণার শিকার কলেজ ছাত্রী স্মৃতি

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরে মিথ্যা তথ্য দিয়ে বিয়ের নামে কলেজ শিক্ষার্থী নুর জাহান স্মৃতিও তার পরিবারের সাথে প্রতারণা করার অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত দুই ভাই আবুল খায়ের মানিক ও মোঃ খোকন কমলনগর উপজেলার চর জাঙ্গালীয়া গ্রামের মৃত নুরনবীর ছেলে। প্রতারণার অভিযোগে তাদের  বিরুদ্ধে লক্ষ্মীপুর সদর থানায় এবং আদালতে একাধিক মামলা করা হয়েছে। মানিক ইতিপূর্বে বিভিন্ন প্রতারণা গ্রেফতার হয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সদর উপজেলার দালাল বাজারের মৃত নুরনবীর মেয়ে নুর জাহান স্মৃতি’র সাথে পারিবারিক ভাবে কমলনগর উপজেলার চরজাঙ্গালী গ্রামের প্রবাসী খোকনের সাথে পারিবারিক ভাবে ২০২০ সালের ১৩ নভেম্বর মুঠোফোনের মাধ্যমে ১০লাখ টাকা দেনমোহরে বিয়ে হয়। কথা হয় খোকন দেশে আসলে কাবিন রেজিষ্ট্রি করা হবে। 
এসময় অগ্রিম কাবিন বাবদ খোকনের বড় ভাই মানিক তার ইসলামী ব্যাংক হাজির হাট শাখার ৩৮৬৪ নং হিসাবের অনুকুলে ৪৪২২৪০৩ নং চেকে ১০ লক্ষ টাকা লিখে স্মৃতির পরিবার কে দেয়। বিদেশ থেকে খোকন দেশে আসলে স্মৃতির কাবিন না দিয়ে তালবাহানা শুরু করে। এরই মধ্যে খোকন স্মৃতিকে কলেজ থেকে অপহরন করে ঢাকা নিয়ে যায়। এ ঘটনায় স্মৃতির নানা ছালেহ আহম্মেদ লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আাদালতে মামলা করেন যাহার নং জিডি ৫৫/২১ইং। 
পরবর্তীতে দুই পরিবারের সম্মতিতে গত ১৯ জুন আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের আসরে বর পক্ষের অগ্রিম কাবিন বাবদ চেকটি তাদের ফেরত দেওয়া হয়। আনুষ্ঠানিক বিয়ের পরেও স্মৃতিকে খোকন তার বাড়িতে তুলে নিতে রাজি হচ্ছিল না। বিভিন্ন অজুহাতে কালক্ষেপন শুরু করে খোকন। স্মৃতির পরিবারের কাছে মোটা অংকের যৌতুকও দাবি করা হয়। শ^শুর বাড়িতে এসে স্মৃতিকে মারধোর ও অশালীন ভাষায় গালিগালাজ করে। এ অবস্থায় কোন উপায় না পেয়ে ১৮ জুলাই স্মৃতি লক্ষ্মীপুর আদালতে উপস্থিত হয়ে খোকনকে তালাক দেয়।
বিষয়টি জানতে পেরে গত ২১ আগস্ট খোকনের বড় ভাই আবুল খায়ের মানিক বাদী হয়ে কমলনগর থানায় নুরজাহান স্মৃতিসহ পরিবারের ৭ জনের নামে একটি মিথ্যা ও সাজানো মামলা করে তাদের হয়রানি করছে।
জানতে চাইলে স্মৃতির নানা সালেহ আহম্মদ বলেন, তারা মিথ্যা তথ্য দিয়ে আমার নাতনিকে বিয়ে করে। বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন অজুহাতে যোতুক দাবি করে। খোকন আমাদের বাড়িতে এসে স্মৃতিকে কয়েক বার মারধোর ও অশালীন ভাষায় গালিগালাজ করে।
 মানিকের দেওয়া চেক বিয়ের আসরে ফেরত দেয়া হয়েছে। আমাদের সরলতার সুযোগ নিয়ে খোকন ও মানিক আমার নাতনির জীবন তছনছ করে দিয়েছে। এর বিচার চেয়ে আমি আদালতে মামলা করি যাহার নং সি আর ৮৮০/২১ তাং ০২/০৯/২১ ইং । বিষয়টি তদন্ত করে প্রতারক দুই ভাইয়ের সঠিক বিচার দাবী করছি।
এ বিষয়ে জানতে মানিকের মোবাইলে একাধিক বার কল করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।.

.

ডে-নাইট-নিউজ / লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

অপরাধ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ